সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারী সব সময় জনগণের সেবায় নিয়োজিত থাকে। আর দেশের সকল জগনের টেক্সের টাকায় সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারীদের বেতন দেওয়া। তবে প্রায় সময় দেশের কিছু স্থান থেকে অভিযোগ উঠে আসে যে কিছু সরকারি কর্মকর্তাকে স্যার বা ম্যাডাম বলে না ডাকলে তারা খেপে যান। এমনকি স্যার বা ম্যাডাম বলে না ডাকার কারণে সেবা দিতে চান না এমন অভিযোগ উঠে আসে। তবে এবার জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী বলেছেন সরকারি কর্মকর্তাদের স্যার বা ম্যাডাম বলতে হবে এমন কোনো রীতি নেই। এছাড়া তিনি আরও বেশ কিছু বিষয়ে কথা বলেছেন।

জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেছেন, স্যার শব্দের বাংলা অর্থ মহোদয়, আর ম্যাডাম শব্দের অর্থ মহোদয়া। রুলস অব বিজনেসে এটা নেই।

মঙ্গলবার সচিবালয়ে গণমাধ্যম কেন্দ্রে ’বিএসআরএফ সংলাপ’ অনুষ্ঠানে এ মন্তব্য করেন প্রতিমন্ত্রী। বাংলাদেশ সেক্রেটারিয়েট রিপোর্টার্স ফোরাম (বিএসআরএফ) এ সংলাপের আয়োজন করে।

বরিশালের ঘটনা নিয়ে প্রতিমন্ত্রী বরেন, এটি একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা। অত্যন্ত আন্তরিকভাবে জনপ্রতিনিধি ও সরকারি কর্মকর্তারা কাজ করে যাচ্ছেন। আমরা বেশি জনমুখী হয়েছি। দু’এক জায়গায় যে ঘটনা ঘটেছে তদন্ত করে বিষয়গুলো বোঝার চেষ্টা করছি।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, এসিল্যান্ড অফিসে অনেক ঝামেলা ছিল, এখন ডিজিটালাইজেশনের কারণে সেই ঝামেলা নেই। এখন ৯৫ শতাংশ কর্মকর্তাই সফল হচ্ছে।

এ সময় প্রতিমন্ত্রী অরো বলেন, ২০১৯ সালের ৭ জানুয়ারি থেকে চলতি বছরের ৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত প্রশাসন ক্যাডারের ৫৫ জন কর্মকর্তাকে লঘু ও গুরুদণ্ড দেয়া হয়েছে। আর শৃঙ্খলা ভঙ্গের জন্য ৪৯টি মামলা চলমান রয়েছে।

সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কীভাবে কাজ করতে হবে এ বিষয়ে বঙ্গবন্ধুর নির্দেশনাগুলো তুলে ধরেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর নির্দেশনা ছিল যারা সেবা নিতে আসেন তাদের দিকে তাকাও, তারা তোমার বাবার মতো, ভাইয়ের মতো, আত্মীয়ের মতো। সেবা নিতে আসে জনগণ। তাদের টাকায় তোমাদের বেতন হয়।

উল্লেখ্য, প্রায় সময় দেশের বিভিন্ন সরকারি অফিস থেকে নানা রকম অভিযোগ উঠে আসে। এমনকি কিছু কিছু অফিস থেকে অভিযোগ ওঠে যে সেখানে নিযুক্ত অসাধু সরকারি কর্মকর্তা ঘুষ না পেলে কাজ করতে চান না। এছাড়া সরকারি কর্মকর্তাদের স্যার বা ম্যাডাম বলে ডাকতে হবে। তবে এবার এই জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী বলেছেন সরকারি কর্মকর্তাদের স্যার বা ম্যাডাম বলে ডাকার কোনো নিয়ম নেই। দেশের সকল নাগরিকদের সেবা দেওয়াই সরকারি কর্মকর্তাদের কাজ।