দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে সংবাদ প্রকাশ পায় যে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকার বাড়িতে অনশন করে প্রেমিকা। এমনকি স্বামী থাকার পরও অন্য পুরুষের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়ান কিছু নারী। তাদের সেই অবৈধ প্রেমের সম্পর্ক একটা সময় সমাজে বড় রকমের বৃঙ্খলা দেখা দেয়। এবার তেমনি একটি ঘটনা ঘটেছে যে এক প্রবাসীর স্ত্রী অন্য পুরুষের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়ান। আর সেই প্রেমিক কে বিয়ের জন্য অনশন করছেন প্রবাসীর স্ত্রী।

নওগাঁর রাণীনগরে বিয়ের দাবিতে স্বামীর ঘর ছেড়ে পরকীয়া প্রেমিকের বাড়িতে অনশন করছেন বিউটি বেগম (২৩) নামে এক প্রবাসীর স্ত্রী। সোমবার বিকেল থেকে প্রেমিকের বাড়িতে অনশন শুরু করছেন ওই গৃহবধূ। তবে বাড়ি ছেড়ে পালিয়েছেন প্রেমিক শাহাদত (২৫)। এ নিয়ে গ্রামে পক্ষে-বিপক্ষে উ’ত্তে’জ’না দেখা দিয়েছে। খবর পেয়ে স্থানীয় সাংবাদিকরা ঘটনাস্থলে গেলে গ্রামের জামাল নামের এক যুবক সাংবাদিকদের কাজে বাধা দেন। এমন অবস্থায় অপর পক্ষ জানতে পেরে উ’ত্তে’জ’না’র একপর্যায়ে লা’ঠি’সো’টা নিয়ে এলে শুরু হয় ধা’ও’য়া পা’’ল্টা ধাওয়া। মঙ্গলবার দুপুর পর্যন্ত গ্রামের মোড়লরা বিষয়টি সমাধানের জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বলে জানা গেছে।

উপজেলার মিরাট ইউনিয়নের মেরিয়া গ্রামের এনামুল সরদারের ছেলে শাহাদত হোসেন একই গ্রামের সৌদি প্রবাসী আপেল মাহমুদের স্ত্রী বিউটির সাথে পরকীয়া পেমে জড়িয়ে পড়েন। একপর্যায় প্রেমিক শাহাদত বিয়ে করার প্রলোভন দিয়ে ওই গৃহবধূর সাথে শা’রী’রি’ক সম্পর্ক করেছেন বলে জানিয়েছেন ওই গৃহবধূ। বিষয়টি বিউটির স্বামী ও স্বজনরা জানার পর পারিবারিকভাবে কয়েক দফা সালিশ বৈঠকে বিউটিকে এমন কর্মকাণ্ড থেকে বিরত থাকার জন্য বলা হয়। কিন্তু পিছু ছাড়ে না শাহাদত।

এ ব্যাপারে বিউটি বলেন, কয়েক দিন আগে শাহাদত আমাদের দু’জনের বেশ কিছু ছবি আমার স্বামীর কাছে পাঠায়। একপর্যায়ে স্বামী আমাকে বাড়ি থেকে চলে যেতে বলে। একইসাথে কিছু ছবি আপেল মাহমুদ আমার বাবার বাড়ি বগুড়া জেলার দুপচাচিয়া পাঠায়। সেখান থেকেও আমাকে বিভিন্নভাবে গা’ল’ম’ন্দ করা হয়। কোনো পথ না পেয়ে আমি শাহাদতের বাড়িতে চলে আসি। আমার উপস্থিতি টের পেয়ে বাড়ির অন্য গলি দিয়ে পালিয়ে যায় শাহাদত। এরপর বাড়ির অন্য সদস্যরাও চলে যায়। শাহাদত যদি আমাকে বিয়ে না করে তাহলে নিজেকে শেষ করা ছাড়া আমার পথ নাই।

রাণীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাহিন আকন্দ জানান, এমনি একটি সংবাদ বিভিন্নভাবে জানতে পেরেছি। তবে কোনো পক্ষই থানায় অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এদিকে, এই পরকীয়ার ঘটনা নিয়ে বর্তমানে ওই যুবকের এলাকায় ব্যাপক আলোচনা সমালোচনা চলছে। অনেকে প্রবাসীর স্ত্রী কে এক নজড় দেখতে সেখানে ভির করছেন। তবে সেই প্রেমিক যুবক ইতিমধ্যে সেখান থেকে পালিয়েছে। এই ঘটনায় ওই এলাকায় সাধারণ মানুষের মধ্যে খারাপ প্রভাব পড়ছে বলেন অনেকে। অনেকে এই ঘটনাটি পারিবারিক ভাবে সমাধান করার কথা বলেছেন।