প্রেমের সম্পর্কের কারণে অনেক সময় তরুণ তরুণী পালিয়ে যায় এমন ঘটনা প্রায় সময় ঘটে থাকে। এমনকি রাজনৈতিক নেতার মেয়েও অন্য পুরুষের হাত ধরে পালিয়ে যায়। এবার তেমনি এক আওয়ামী লীগের মেয়ে এক ছাত্রলীগ নেতার হাত ধরে পালিয়েছেন বলে সংবাদ প্রকাশ পেল। এই ঘটনা নিয়ে বর্তমানে ওই আওয়ামী লীগ নেতার এলাকায় বেশ আলোচনা শুরু হয়েছে। এবার এই ঘটনা সম্পর্কে বিস্তারিত প্রকাশ্যে এলো।

রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলায় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের এক সভাপতির মেয়েকে নিয়ে পালিয়েছেন কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি। মেয়ের সন্ধান চেয়ে ভুক্তভোগী বাবা থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন। অভিযোগ পেয়ে তাদের উদ্ধারের চেষ্টা করছে পুলিশ।
গত মঙ্গলবার (৮ জুন) দিনগত রাতে তারা পালিয়ে যান এবং বুধবার (৯ জুন) ভুক্তভোগী বাবা মেয়ের সন্ধান চেয়ে বেলপুকুর থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন। এ ঘটনায় এলাকায় বেশ চাঞ্চল্যকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।
অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতার নাম দেলোয়ার হোসেন। তিনি বানেশ্বর ইউনিয়নের আবদুস সোবহানের ছেলে এবং বানেশ্বর সরকারী কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি। তার সঙ্গে পালিয়ে যাওয়া ওই তরুণী বেলপুকুর ইউনিয়নের ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতির মেয়ে এবং বানেশ্বর সরকারী কলেজের শিক্ষার্থী। তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক ছিলো।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার রাতে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের এক সভাপতির অনার্স পড়ুয়া মেয়েকে নিয়ে পালিয়ে যান কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি দেলোয়ার হোসেন। এরপর থেকে তাদের কোনো সন্ধান নেই।

এদিকে মেয়ের সন্ধান চেয়ে বুধবার (৯ জুন) বেলপুকুর থানায় সাধারণ ডায়েরি করে ওই কলেজ ছাত্রীর বাবা। এনিয়ে ওই এলাকায় চাঞ্চল্যে সৃষ্টি হয়েছে।
এ ব্যপারে কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি দেলোয়ার হোসেনের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তার মুঠোফোন নম্বরটি বন্ধ পাওয়া যায়।
এ ব্যাপারে অভিযোগ পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে বেলপুকুর থানার ওসি আলমগীর হোসেন জানান, পুলিশ কলেজ ছাত্রীকে উদ্ধারের চেষ্টা করছে। সূত্র:মানবজমিন

এদিকে, ওই আওয়ামী লীগ নেতার মেয়ে ও ছাত্রলীগ নেতাকে খোঁজ করছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। তবে তারা কোথায় আছে তার এখনো কোনো হদিছ মেলেনি। অনেকে মনে করছেন তাদের মধ্যে হয়তো দীর্ঘদিনের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। আর এই প্রেমের সম্পর্কের কারণে তারা একে অপরের হাত ধরে পালিয়েছে। বর্তমানে এই সকল বিষয় আরও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।