দেশের বিভিন্ন স্থানে প্রায় প্রতিদিন বিবাহ বিচ্ছেদ হচ্ছে। তবে অনেক সময় বিবাহ বিচ্ছেদের পর নারী বা পুরুষ হতাশায় ভোগেন। আর এই হতাশার কারণে অনেকে খারাপ সিদ্ধান্ত নেয়। আর এবার এক সিভিল ইঞ্জিনিয়ার তার স্ত্রীর সঙ্গে বিবাহ বিচ্ছেদ করেন। তবে এবার সেই সিভিল ইঞ্জিনিয়ারের নিথর দেশ উদ্ধার করা হয়েছে। এবার এই বিষয়ে বিস্তারিত সংবাদ জানা গেল।

রাজধানীর রামপুরা থেকে এক সিভিল ইঞ্জিনিয়ারের ’’ঝু//ল//ন্ত’’ নিথর দেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার রাত সাড়ে ১১টায় রামপুরার বনশ্রী এলাকা থেকে নিথর দেহটি উদ্ধার করে মঙ্গলবার ম’য়’না’ত’দ’ন্তে’র জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের ’’ম//র্গে’’ পাঠানো হয়েছে।

এই ব্যক্তির নাম শওকত আলী (২৭)। তিনি মার্ন ষ্টীল স্ট্রাকচার নামের একটি কোম্পানিতে সিভিল ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। পারিবারিক কলহের জেরে মাস দুয়েক আগে স্ত্রীর সঙ্গে তার বিচ্ছেদ হয়ে যায়।

এরপর থেকে শওকত ভাগ্নে ফয়সালের সঙ্গে ব্লক-বি এর ৬ নম্বর রোডের ৩৪ নম্বর বাসার ৬ তলায় ভাড়া থাকতেন।

ফয়সাল জানান, সোমবার দিনভর তিনি বাসায় ছিলেন না। রাতে বাসায় ফিরে দেখেন মামা শওকত ফ্যানের সঙ্গে ঝুলছেন। পরে খবর পেয়ে পুলিশ এসে নিথর দেহ উদ্ধার করে।

এ বিষয়ে রামপুরা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই)মমিনুর রহমান বলেন, বিয়েবিচ্ছেদের পর হ’তা’শা’গ্র’স্ত থাকতেন শওকত। ধারনা করা হচ্ছে সোমবার বিকাল ৪টা থেকে রাত সাড়ে ১০টার যেকোনো সময়ে তিনি ’’গ////লা///য় ফাঁ///স দিয়ে নিজেকে শে’ষ করেছেন। তবে মৃ’’ত্যু’’র সঠিক কারণ জানতে নিথর দেহ ময়নাতদন্তের জন্যে ’’ম’’র্গে’’ পাঠানো হয়েছে।

শওকত ময়মনসিংহ জেলার ভালুকা থানার ভরাডুবা এলাকার আব্দুল মোতালেবের ছেলে।

এদিকে, দেশের এমন বিবাহ বিচ্ছেদ বেড়েই চলেছে। তবে অনেকে মনে করেন ধর্মীয় নিয়ম কানুন না মানার কারণে দিন দিন এমন ঘটনা বেড়েই চলেছে। আর এমন বিবাহ বিচ্ছেদের কারণে নারী পুরুষের মধ্যে হতাশাও বাড়ছে। যার কারণে প্রায় সময় অনেকে এমন ঘটনা ঘটাচ্ছে।