অবশেষে বিতর্ক নিয়ে মুখ খুললেন অক্ষয়

বলিউডের আলোচিত অভিনেতা অক্ষয় কুমার। অভিনয় ক্যারিয়ারে অসংখ্য জনপ্রিয় সিনেমা উপহার দিয়েছেন তার ভক্ত ও দর্শকদের। একের পর এক ব্যবসা সফল সিনেমার মাধ্যমে বলিউড পাড়ার নিজের শক্ত অবস্থান করে নিয়েছেন আলোচিত অভিনেতা। অভিনয়ের পাশাপাশি বিভিন্ন ঘটনার মাধ্যমে প্রায় আলোচনা থাকতে দেখা যায় তাকে। সম্প্র্রতি সিনেমায় সাফল্য না পাওয়া সমালোচনা হওয়ায় মুখ খুললেন অভিনেতা।

অক্ষয় কুমার বলিউডের সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং ব্যস্ত অভিনেতা। সিনেমায় তিনি বিভিন্ন চরিত্রে নিজেকে তুলে ধরেছেন দর্শকদের সামনে। প্রতিটি চরিত্রকে এমনভাবে তুলে ধরেন যে মনে হয় সত্যি চরিত্রটির ব্যক্তিটিকে দেখতে পাচ্ছেন।

কিন্তু ২০২২ অক্ষয় কুমারের জন্য ভালো যাচ্ছে বলে মনে হচ্ছে না। অক্ষয় কুমারের ছবিগুলো পরপর ফ্লপ হচ্ছে। মোট চারটি ছবি মুক্তি পেলেও চারটিই ফ্লপ। বেশ কিছু দিন ধরেই সিনেমা জগতে অক্ষয়ের কাজের দায়বদ্ধতা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে।

জানা গেছে, অক্ষয় কুমার একটি ছবিতে ৩০ দিন সময় নেন। সম্প্রতি দক্ষিণ ভারতীয় ছবির সুপারস্টার রাম চরণের মঞ্চে অক্ষয়ের সঙ্গে দেখা গেছে অক্ষয়কে। সেখানে, রামচরণ অক্ষয়কে নিয়ে মজা করে বলেছিলেন যে RRR-এর শট নিতে তাদের ৩৫ দিন লেগেছিল, কিন্তু অক্ষয় একটি ছবির শুটিং করতে ৩০ দিন সময় নেন।

শেষ পর্যন্ত তাকে নিয়ে চলা যে বিতর্ক চলছিল তা নিয়ে মুখ খুললেন অক্ষয়। অক্ষয় গত কয়েক মাস ধরে তার এমন গুঞ্জন সম্পর্কে বলেছেন, “আসলে, আমি জানি না আমি কী করবো!” মিডিয়ার সবকিছুতেই সমস্যা আছে। আমি কেন স/কালে উঠি? রাতে তাড়াতাড়ি ঘুমাতে যান কেন? আমি কেন এত কাজ করছি বা কেন একই সঙ্গে চারটি ছবি করছি? এরকম আরো অনেক প্রশ্ন আছে।

অন্যদিকে, অক্ষয় কিছুটা রেগে যান এবং বলেন যে যদি একটি ছবিতে ৫০ দিন বা ৭০ দিন লাগে, সেই দিনগুলিতেও কাজ করি। শেষে অক্ষয় বলেন আমি আর কি করব জানি না, বুঝতে পারছি না।

সাম্প্রতিক অতীতে ‘সূর্যবংশী’ ছাড়া অক্ষয়ের কোনো হিট ছবি নেই। ফলে তাকে নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়েছে নেট দুনিয়ায়। কেউ কেউ বলছেন, অভিনেতাদের আগামী দিনে চলচ্চিত্রের সংখ্যার চেয়ে চলচ্চিত্রের মানের দিকে মনোযোগ দেওয়া উচিত। সিনেমা জগত থেকে আরও জানা যায় যে, সম্প্রতি সিনেমার স্বার্থে নিজের বেতন কমাতে রাজি হয়েছেন অক্ষয়।

প্রসঙ্গত, সিনেমায় সাফল্য না পাওয়া বিভিন্ন ধরনের কটক্ষের শিকার হচ্ছেন তিনি। বিষয়টি নিয়ে সরব হলেন আলোচিত অভিনেতা।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *