বাংলাদেশের মুক্তি মানে, আপামর সাধারণ মানুষের ক্ষমতায়ন : পিনাকী

ক্ষমতাসীন সরকার বিনা ভোটে ক্ষমতা দখল করে একনায়তন্ত্রের রাজত্ব কায়েম করেছে। দেশের জনগণের ভোটাধিকার ও গণতন্ত্র কেড়ে নিয়েছেন অবৈধ্য ভাবে ক্ষমতায় থাকতে। অথচ দিন-রাত গণতন্ত্রের ছোবক দিচ্ছে সরকারের মন্ত্রী-এমপির। এসব থেকে মুক্তি পেতে দেশের মানুষকে লড়াই করে নিজেদের অধিকার আদায় করে নিতে হবে। না হলে প্রকৃত অর্থে এ দেশের মানুষ মুক্তি পাবে না। বিষয়টি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন পিনাকী ভট্টাচার্য হুবহু পাঠকদের নিচে দেওয়া হলো।

বাংলাদেশের সাধারণ মানুষকে রাজনীতি আর অর্থনীতির বোঝাপড়া করতে শিখতে হবে। নিজের সিদ্ধান্ত নিজে নেয়ার মতো হিম্মত অর্জন করতে হবে। কোন বিষয় বুঝার জন্য বিশেষজ্ঞদের শরনাপন্ন না হয়ে নিজেই বুঝে নিতে হবে। সেদিনই বাংলাদেশের মুক্তি। বাংলাদেশের মুক্তি মানে, আপামর সাধারণ মানুষের ক্ষমতায়ন। এই কালে ক্ষমতা আসে জ্ঞান থেকে। আমার কাজ সেই জ্ঞানকে সাধারণের মাঝে পৌছে দেয়া। সো কল্ড জ্ঞানীরা কীভাবে মিথ্যাচার করে সাধারণ মানুষকে এতোদিন ধোকা দিয়েছে সেটা চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দেয়া।

জ্ঞানের আলাপকে তৃণমূলে পৌছে দিতে পারলেই পথ হারাবে না বাংলাদেশ। তৃণমুলের সাধারণ মানুষই বাংলাদেশ।

প্রসঙ্গত, ক্ষমতা ধরে রাখতে তারা আবারও ভিন্ন পথ বেছে নিবে কিন্তু দেশের মানুষ এসবের বিরুদ্ধে রখে না দাঁড়ালে এভাবেই নির্যাতিত হতে হবে মন্তব্য করেন পিনাকী চট্টপাধ্যায়। তিনি আরও বলেন, জনগণ সকল ক্ষমতায় উৎস অধিকার আদায়ে তাকেই সচ্চার হতে হবে।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *