বেশি ঘাটবেন না, বেশি ঘাটলে কেঁচো বেরিয়ে আসবে : ফখরুল

আগামী নির্বাচনে সামনে রেখে রাজনৈতিক দলগুলো মাঠে সরব হচ্ছে। রাজনৈতিক দলগুলো নিজেদের সাংগঠনিক ক্ষমতা বাড়াতে নেতাকর্মীদের আন্দোলন, মিটিং, মিছিল সম্পক্ত করার চেষ্টা চালাচ্ছে। তবে বিএনপি নিরপেক্ষ সরকারসহ বিভিন্ন দাবিতে আন্দোলন সমাবেশ করছে। সরকারের ওপর চাপ সৃষ্টি ও তাদের দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত মাঠে থাকার ঘোষনা দিয়েছে তারা। বিএনপি নেতাদের রাজনীতি করার টাকার উৎস সম্পর্কে আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পদকের বক্তব্যের নিন্দা জানিয়ে যা বললেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল।

বিএনপি নেতাদের অর্থের উৎস নিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্যের সমালোচনা করে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, আমরা পৈত্রিক সম্পত্তি বিক্রি করে রাজনীতি করি। নেতাকর্মীদের টাকা দিয়েই সমাবেশ হচ্ছে। কিন্তু সবাই জানে আপনারা কি করেন।

তিনি বলেন, ওবায়দুল কাদের সাহেব বলেছেন, দুবাই থেকে টাকা পাই, টাকার ওপর ঘুমাই। বেশি ঘা/টবেন না, বেশি ঘাটলে কেঁ/চো বেরিয়ে আসবে।

রোববার (৩০ অক্টোবর) রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুল এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদেরকে উদ্দেশ্য করে মির্জা ফখরুল বলেন, ওবায়দুল কাদের খুবই আপত্তিকর মন্তব্য করেছেন। সব রাজনৈতিক শিষ্টাচারের ঊর্ধ্বে গিয়ে তিনি কথাগুলো বলেছেন এবং আমাকে ব্যক্তিগতভাবে আক্রমণ করেছেন। ব্যক্তিগত আক্রমণ করবেন না। সামলাতে পা/রবেন না। সবাই জানে কার কয়টা বাড়ি, কার ক/ত টাকা আছে।

তিনি বলেন, কোথায় হাজার হাজার কোটি টাকার বাড়ি বানাচ্ছেন, ব্যাংক লোন নিয়ে পাচার করছেন, বাংলাদেশের এসব মানুষ সব খবর রাখে। সরকারী জায়গার ভিতরে, বিশাল নিরাপত্তা বেষ্টনীর করে, সরকারী গাড়ি আর টাকা ব্যবহার করে আপনারা যাদের নিয়ে এসেছেন তাদের দিয়ে চেয়ারগুলোও পর্যন্ত পূর্ণ করতে পারেননি। ২২ হাজার চেয়ার ছিল। ২২ হাজার চেয়ার পূর্ণ না হলে তাহলে কত লোক হয়েছিল!

তিনি আরও বলেন, আমি বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করতে চাইনি। যেহেতু তিনি (ওবায়দুল কাদের) আমার নাম উল্লেখ করেছেন, সে কারণেই কথাগুলো বলেছি। এত বড় রাজনৈতিক দলের সাধারণ সম্পাদকের কাছ থেকে এমন অশালীন ও ব্যক্তিগত আক্রমণ আমরা আশা করি না।

প্রসঙ্গত, বিএনপির সমালোচনা করতে গিয়ে ব্যক্তিগত আক্রমন প্রত্যাশা করে না মন্তব্য করেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল। তিনি বলেন, সরকারি দলের নেতাদের সম্পদের বিষয়টি অজানা নাই কারর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *