আমাকে নয়, আমার নেত্রী গণতন্ত্রের মানস কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বাঁচান: শামীম ওসমান

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এক সময় অনেক খারাপ সময় দিন পার করেছে। বিশেষ করে ২০০০ সালের শুরু দিকে দেশের এই বৃহত্তম রাজনৈতিক দল অনেক সমস্যার মধ্যে দিয়ে গিয়েছে। সে সময় দলের বেশ কয়েকজন সিনিয়র নেতা না ফেরার দেশে চলে গেছে। এছাড়া দলের প্রধান শেখ হাসির জীবনেও কয়েকবার বিপদ নেমে এসেছে। তবে এই খারাপ সময়ে দলের নেতাকর্মীরা সব সময় শেখ হাসিনার পাশে ছিলেন। এমনকি শেখ হাসিনা ২০০১ সালের ১৬ জুনে সব থেকে বড় বিপদে পড়েন তখনো দলের নেতাকর্মীরা তাড় পাশে ছিলেন। এদিকে, বর্তমান সংসদ সদস্য শামীম ওসমান শেখ হাসিনাকে সব সময় আগলে রেখেন। আর এবার তেমনি অতিতের কথা সরণ করেছে দলের নেতা।

আমাকে নয়, আমার নেত্রী গণতন্ত্রের মানস কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বাঁচান। ২০০১ সালের ১৬ জুন চাষাড়ায় গ্রে”’নে”’ড হা”ম”লা”য় মা”রা”ত্ম”ক আ”হ”ত অবস্থায় নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য এ কে এম শামীম ওসমান তার নেতৃবৃন্দ ও কর্মীদের কাছে এই আকুতি জানিয়েছিলেন।

রবিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) বিকেলে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ৩নং ওয়ার্ডের বটতলা বঙ্গবন্ধু চত্বরে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের কর্মী সম্মেলনের বিশেষ অতিথির বক্তব্যে নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহ নিজাম এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, আমাদের প্রাণপ্রিয় মাটি ও মানুষের নেতার শরীর সেদিন র”’ক্তে রঞ্জিত হয়েছিল। এক সময় তিনি জ্ঞান হা’রিয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। জ্ঞান ফিরে আসার পর আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আমাকে নয় আমার নেত্রী শেখ হাসিনাকে আপনারা বাঁচান। তাকে মে”’রে ফেলার চ’ক্রা’ন্ত চলছে। আমার নেতার কথাই সত্যি হয়েছিল। ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সামনে শেখ হাসিনাকে শে”ষ করার উদ্দেশ্যে ওই ঘটনা চালানো হয়েছিল। আল্লাহর অশেষ রহমত ও মানুষের দোয়ায় সেদিন তিনি নিশ্চিত মৃ”ত্যু”’র হাত থেকে বেঁ’চে যান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ৩নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সিদ্ধিরগঞ্জ থানা ছাত্রলীগের আহবায়ক শাহজালাল বাদলের সভাপতিত্বে অন্যান্যদের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত শহিদ মোহাম্মদ বাদল, মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বাবু চন্দন শীল, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট খোকন সাহা, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক ইয়াছিন মিয়া, ওয়ার্ড পঞ্চায়েত কমিটির সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান সাজু প্রমুখ।

সভাপতির বক্তব্যে স্থানীয় কাউন্সিলর শাহজালাল বাদল বলেন, আমরা আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনাকে ভালোবাসি, তার জন্য হেসে হেসে প্রাণটুকু দিতে পারি। সংসদ সদস্য এ কে এম শামীম ওসমানের নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের সোনার বাংলা গড়ার জন্য আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ একটা সময় অনেক খারাপ সময় পার করেছে। তবে এই সময় তাদের নেতাকর্মীরা এক সঙ্গে ছিলেন। যার কারণে খারাপ সময় পাড় করে এসেছে আওয়ামী লীগ। আর বর্তমান সময়েও ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের সকল নেতাকর্মীরা এক রয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য দলের নেতাকর্মীরা নিজের জীবন দিতেও প্রস্তুত রয়েছে। আর এর প্রমাণ অতিতে অনেকে দিয়েছে। অতিতের কথা সরণ করে অনেক নেতাকর্মী প্রায় সময় বিভিন্ন সময় বক্তব্য দেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *