সুখবর, তারা বিমানকে অ্যালাউ করেছে : নিউইয়র্ক থেকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী

বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মতো আমেরিকায় অসংখ্য প্রবাসী বাংলাদেশি রয়েছে। এদিকে, দেশটির সঙ্গে নানা বিষয়ে আলোচনা করছে বাংলাদেশ সরকার। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বর্তমানে নিউইয়র্কে রয়েছেন। এদিকে, নিউইয়র্কের সঙ্গে একটা সময় ঢাকার বিমান যোগাযোগ ছিল। তবে গত কত কয়েক বছর ধরে নিউইয়র্কের সঙ্গে ঢাকার বিমান চলাচল বন্ধ রয়েছে। আর এবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিউইয়র্কে যাওয়ার পর বেশ কিছু ভালো খবর আসছে। ঢাকা-নিউইয়র্ক রুটে বিমানের নিয়মিত ফ্লাইট নিয়ে কথা বলেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

ঢাকা-নিউইয়র্ক রুটে বিমানের নিয়মিত ফ্লাইট চালু হবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। তিনি বলেন, আমেরিকাবাসী খুব খুশি হবে যদি বাংলাদেশ থেকে এখানে বিমানের ফ্লাইট চালু হয়। প্রধানমন্ত্রী গতকাল বিমানে এসেছেন। সুখবর, তারা বিমানকে অ্যালাউ করেছে। চার্টার্ড ফ্লাইট হতে পারে, কিন্তু তারা বিমানকে অ্যালাউ করেছে। আশা করি আগামীতে নিউইয়র্ক-ঢাকা বিমান চালু হবে। গতকাল সোমবার নিউইয়র্কে হোটেল লোটে প্যালেসে প্রেস ব্রিফিংয়ে এ আশা প্রকাশ করেন তিনি।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, আমরা আগে নিউইয়র্ক থেকে বাংলাদেশে যেতাম বাংলাদেশ বিমানে করে, বহু বছর আগে। তারপর বিমানটা বন্ধ হয়ে যায়।
এখন আমাদের বিমান এখানে এসেছে। আমাদের প্রত্যাশা যে, আগামীতে বাংলাদেশ বিমান নিউইয়র্ক টু ঢাকা এই লাইনটা চালু হবে।

ফ্লাইট চালুর অগ্রগতি সম্পর্কে ড. মোমেন বলেন, আপনারা জেনে খুশি হবেন, ইতোমধ্যে এখানকার ফেডারেল এভিয়েশন অথরিটির সঙ্গে একটা চুক্তি হয়েছে এবং এটা বেশ ভালো পর্যায়ে রয়েছে। সে জন্য আমরা আশাবাদী হতে পারি। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের সর্বাধুনিক প্রযুক্তির উড়োজাহাজের পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ব্যক্তিগত ইমেজ, বিশ্বে বাংলাদেশের সুনাম বৃদ্ধি, কূটনৈতিক প্রচেষ্টার কারণে ফ্লাইট চালুর বিষয়টি অনেক অগ্রগতি হয়েছে বলে জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

উল্লেখ্য, দেশটিতে অসংখ্য প্রবাসী বাংলাদেশি রয়েছে। প্রতি বছর অসংখ্য প্রবাসী বাংলাদেশি দেশে আসা যাওয়া করে। তবে ঢাকার সঙ্গে নিউইয়র্কের সরাসরি বিমান চলাচল না থাকায় যাত্রীদের বিপাকে পড়তে হয়। তবে এবার দেশটিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যাওয়ার পর নানা বিষয়ে আলোচনা হচ্ছে। এ জন্য সামনে দিয়ে ঢাকা-নিউইয়র্ক রুটে বিমানের নিয়মিত ফ্লাইট চালু হবে এমনটা আশা করা হচ্ছে। এই রুটে নিয়মিত ফ্লাইট চালু হলে যাত্রীদের ভোগান্তী কমবে বলছেন অনেকে।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *