টস জিতে বাংলাদেশকে ব্যাটিংয়ে পাঠিয়েছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসিস। আশা ছিল, তার বোলাররা ঝাঁপিয়ে পড়বে টাইগার ব্যাটারদের ওপর। তবে আশায় গুড়েবালি।
বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানদের সামনে কোনো প্রতিরোধই গড়ে তুলতে পারেননি তারা। ফলে প্রোটিয়াদের ৩৩০ রানের চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেন লাল-সবুজ জাসিধারীরা।

রাবাদা, লুঙ্গি, ফিকোয়ো, তাহিররা না পারলেও সেটি করে দেখিয়েছেন বাংলাদেশ বোলাররা। নজরকাড়া বোলিং করেছেন মোস্তাফিজ, সাকিব, সাইফ, মিরাজরা। ফলে ৩০৯ রান তুলতে সক্ষম হয় দক্ষিণ আফ্রিকা।

এতে ২১ রানের দুর্দান্ত জয় নিয়ে বিশ্বকাপযাত্রা শুরু করে বাংলাদেশ। টাইগারদের বোলিং নৈপুণ্যে মুগ্ধ সাবেক প্রোটিয়া ক্রিকেটার জন্টি রোডস। সঙ্গত কারণে মোস্তাফিজদের প্রশংসা করেছেন তিনি। পাশাপাশি এখনই ঘাবড়ানোর কিছু নেই বলে নিজের দলকে সাহস জুগিয়েছেন একসময়ের বিশ্বসেরা ফিল্ডার।

এক টুইটবার্তায় রোডস লেখেন, এখনই ঘাবড়ানোর কিছু নেই। স্বাধীনভাবে খেলে যেতে হবে। কিন্তু আমি মনে করি, বাংলাদেশ আমাদের দেখিয়ে দিয়েছে এ কন্ডিশনে কীভাবে বোলিং করতে হয়।

বাংলাদেশের পরের ম্যাচ নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে। ৫ জুন একই ভেন্যু ওভালে হবে দুদলের লড়াই। ম্যাচটি হবে দিবারাত্রির। তথ্যসূত্র: টুইটার