বর্তমান সরকার মহামারি করোনা ভাইরাস মোকাবেলার চেষ্টা করে যাচ্ছে। এদিকে, সরকার করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন আনছেন। একই সাথে দেশের সকল নাগরিকদের করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন দেওয়ার ব্যবস্থা করছে। তবে করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন কেনার জন্য অনেক অর্থের প্রয়োজন। আর এবার এই করোনা ভাইরাস মোকাবেলার জন্য বাংলাদেশে পাশে দাঁড়ানোর কথা বলেছে বিশ্বব্যাংক। সরকারকে বড় সুখবর দিয়েছে বিশ্বব্যাংক।

বিশ্বব্যাংক সরকারি ইলেক্ট্রনিক ক্রয়-ব্যবস্থা (ই-জিপি)’র সম্প্রসারণসহ কোভিড-১৯ চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় বাংলাদেশকে সহায়তার জন্য গতকাল অনুমোদন দিয়েছে ৪ কোটি মার্কিন ডলারের একটি ঋণ।

আজ রবিবার বিশ্বব্যাংকের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। বলা হয়েছে, ডিজিটাইজিং ইমপ্লিমেন্টেশন মনিটরিং অ্যান্ড পাবলিক প্রকিউরম্যান প্রজেক্ট (ডিআইএমএপিপিপি)-তে এই অতিরিক্ত অর্থায়ন– সকল সরকারি প্রতিষ্ঠানে ইলেক্ট্রনিক ক্রয়ে ই-জিপি সম্প্রসারণে সহায়তা করবে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, কোভিড-১৯ মহামারির চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা ও ভবিষ্যতে যে কোন ধরনের জরুরি অবস্থায় এই অর্থায়ন আন্তর্জাতিক দরপত্র, সরাসরি চুক্তি, কাঠামোগত চুক্তি, ইলেক্ট্রনিক চুক্তি ব্যবস্থাপনা ও অর্থ প্রদান, ক্রয় সংক্রান্ত তথ্য বিশ্লেষণ, জিও ট্যাগিং ও অন্যান্য বিষয়সহ ই-জিপি ব্যবস্থায় গুরুত্বপূর্ণ বৈশিষ্ট্য যোগ করতে সহায়তা করবে।
বাংলাদেশ ও ভুটানে নিযুক্ত বিশ্বব্যাংকের কান্ট্রি ডিরেক্টর মার্সি টেম্বন বলেন, ’বাংলাদেশ সরকারি ক্রয় পরিবেশের উন্নয়নে জিডিটাল ব্যবস্থাসহ পদ্ধতিগত পরিবর্তন এনেছে। কোভিড-১৯ এর কারণে সাধারণ ছুটির সময়, ই-জিপি দেশব্যাপী উন্নয়ন কার্যক্রম অব্যহত রাখার ক্ষেত্রে একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে।’

তিনি আরো বলেন, ’এই অর্থায়ন দেশে সময়মত মনসম্মত সরকারি কার্যক্রম ও সেবা প্রদান অব্যহত রাখতে ই-জিপি’র শতভাগ ব্যবহার নিশ্চিত ও সার্বিক পদ্ধতির উন্নয়ন ঘটাতে সহায়তা করবে।’

এই অর্থায়ন জরুরি ক্রয় প্রক্রিয়াকে শক্তিশালী করতে সহায়তার পাশাপাশি টেকসই ক্রয় প্রক্রিয়ার জন্য একটি টেকসই রোডম্যাপ উদ্ভাবন করবে। এটা ছোট ও মাঝারি ধরনের ব্যবসা ও নারী পরিচালিত ব্যবসায় সহায়তার পাশাপাশি সরকারি ক্রয় ব্যবস্থাপনায় নাগরিকদের অংশ গ্রহণের জন্য একটি পদ্ধতি গড়ে তুলবে।

সূত্র : বাসস, বিডি-প্রতিদিন


এদিকে, বর্তমান সরকার দেশে করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন দিচ্ছে। ইতিমধ্যে দেশের অনেক মানুষ করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন গ্রহণ করেছেন। আর ধীরে ধীরে দেশের সকল মানুষদের এই করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। সেই লক্ষে কাজ করছে বর্তমান সরকার। আর এই সময় সরকারকে ঋণ দেওয়ার কথা বলেছে বিশ্বব্যাংক।