করোনা ভাইরাসের কারণে দেশের সাথে আন্তর্জাতিক রুটে ফ্লাইট চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়। মূলত করোনা ভাইরাসের বিস্তার রোধের জন্য এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। তবে এরপর দেশে করোনা ভাইরাসে সংক্রমণ কমেনি বরং দিন দিন রেকর্ড পরিমাণ মানুষ করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত হচ্ছে। এদিকে, বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে অনেক মানুষ দেশে ফেরার অপেক্ষায় রয়েছে। এছাড়া কাজের জন্য দেশ থেকে অনেকে বিশ্বের অন্য দেশে যেতে চায়। কিন্তু আন্তর্জাতিক রুটে ফ্লাইট বন্ধ থাকায় অনেকে নানা রকম বিপদে পড়েছে।


আন্তর্জাতিক এয়ারওয়েজের সিদ্ধান্ত পর্যবেক্ষণের পরে আন্তর্জাতিক রুটে পুনরায় ফ্লাইট চালুর পরিকল্পনা করেছে দেশের বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়।

বুধবার এক ভার্চুয়াল বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সভায় বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী এবং সিএএবির চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল এম মাহিদুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

করোনভাইরাস মহামারিজনিত কারণে অর্থনৈতিক সঙ্কটে বিমান সংস্থাগুলোকে সহায়তা করার জন্য পদক্ষেপও গ্রহণ করেছে মন্ত্রণালয়। ডিসেম্বর অবধি দেশীয় বিমান সংস্থাগুলোর জন্য বিমানের চার্জের শতভাগ মওকুফ এবং আন্তর্জাতিক বিমান সংস্থাগুলোর জন্য ৫০ শতাংশ মওকুফ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সূত্র:কালের কন্ঠ


এদিকে, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এখনো করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বেড়েই চলেছে। যার কারণে এখনো বিশ্বের বিভিন্ন দেশ আন্তর্জাতিক রুটে ফ্লাইট চলাচল বন্ধ রয়েছে। এদিকে দেশেও করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বেড়েই চলেছে। তবে এরপরও দেশের সকল সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান খোলা হয়েছে। এছাড়া গণপরিবহনও চালু করা হয়েছে। আর এবার আন্তর্জাতিক রুটে ফ্লাইট চালুর পরিকল্পনা করা হচ্ছে।