সংবিধান বিশেষজ্ঞ ও বিশিষ্ট আইনজীবী ড. শাহদীন মালিক বলেন, ক্রমে একটি আইনহীন সমাজের দিকে এগোচ্ছি আমরা। যেখানে কোন আইন থাকবে না, আমাদের কোন নিরাপত্তাবোধ থাকবে না, এমনকি
অন্যায় ও অপরাধ হলে আইন অনুযায়ী কোন বিচার হবে না। জাতীয় প্রেস ক্লাবে মৌলিক অধিকার সুরক্ষা কমিটি আয়োজিত জোরপূর্বক উধাও
সম্পর্কে বাংলাদেশের বর্তমান বাস্তবতা এবং জাতিসংঘের সুপারিশ শীর্ষক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন তিনি।
তিনি জানান, ক্যাসিনো ব্যবসা পুলিশের নাকের ডগায় হচ্ছে অথচ পুলিশ বলছে তারা জানে না! চারদিকে শুধু দুর্নীতি হচ্ছে। এসব পচন শুরু হয়েছে বিচারবহির্ভূত মারা ও উধাও দিয়ে। এক্ষেত্রে বড় উদ্বেগ হচ্ছে এর আগে যেসব দেশে বিচারবহির্ভূত মারা ও উধাও তাদের থেকে আমরাও আমাদের ভবিষ্যতের চিত্র দেখতে পাই। সে সমাজ আমাদের কারো কাম্য নয়। তিনি বলেন, সমাজে অবশ্যই অপরাধ আছে, অনিয়ম আছে, বিশৃঙ্খলা রয়েছে।

কিন্তু আইনের বাইরে গিয়ে কোনো সমাজই এসব সমস্যার সমাধান করতে পারেনি। অনেক দেশই বোকার মতো এটা ভেবেছে তবে কোনো কাজ হয়নি। আমাদের দেশেও একটা ভাবনা এসেছে যে, দু’চারশ মানুষকে মারলেই অবৈধ কাজ বন্ধ হয়ে যাবে। তা কোন ক্রমেই সম্ভব নয়। কারণ হিসেবে তিনি বলেন, এর আগে কোনো দেশই এভাবে
অপরাধ দমন করতে পারেনি। তবে এর ফলাফল হয় অনেক ভয়াবহ।
তিনি আরও জানান, আমাদের উদ্বেগের বিষয় হচ্ছে আমরা টোটালি আইনহীন সমাজের দিকে এগোচ্ছি। এর ফলাফল কি তা বর্তমানে সরকারে আছে তারা দেখে কিনা তা আমি জানি না, কিন্তু আমি তা ভাল ভাবেই দেখছি।

এই সভায় উপস্থিত ছিলেন- নারীপক্ষের আহ্বায়ক শিরিন হকের সভাপতিত্বে, আইন বিভাগের অধ্যাপক ড. আসিফ নজরুল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের অধ্যাপক ড. সি আর আবরারসহ আরও অনেকে।