বিশ্বে বর্তমানে একটি ভীতিকর নাম করোনা ভাইরাস। এই ভাইরাসের কারণে এরই মধ্যে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ অনেক বড় সমস্যার মধ্যে পড়েছে। এদিকে, বিশ্বের বিভিন্ন দেশ করোনা ভাইরাস নিয়ন্ত্রণের জন্য বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করছে। এরপরও অতি দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে করোনা ভাইরাস। এদিকে, পাকিস্তানে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা কয়েক দিনে বৃদ্ধি পেয়েছে।
জাতির উদ্দেশে ভাষণে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছেন, করোনাভাইরাস সংক্রমণ অব্যাহত থাকলেও পাকিস্তানের শহরগুলো এখন ’শাট ডাউন’ করা সম্ভব নয়। ’শাট ডাউন’ এর যে অর্থনৈতিক ক্ষতি তা মোকাবিলা করার সামর্থ্য পাকিস্তানের নেই। বুধবার (১৮ মার্চ) এ খবর জানিয়েছে আল জাজিরা।

ভাষণে ইমরান নাগরিকদের উদ্দেশে বলেন, ভীত হবেন না। করোনাভাইরাস ছড়ানো বন্ধ করার শক্তি কারোই নেই। তবে, নিরাপদে থেকে ভাইরাস সংক্রমণ ঠেকানো সম্ভব।

এর আগে, করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট কোভিড-১৯ রোগে পাকিস্তানে ২৪৩ জন আক্রান্ত হয়েছেন। তাদের অধিকাংশই ভাইরাস উপদ্রুত ইরান সফর করে দেশে ফিরেছিলেন। দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে পাকিস্তানেই আক্রান্তের সংখ্যা সবচেয়ে বেশী।

জাতির উদ্দেশে ভাষণে তিনি আরও বলেন, এমনিতেই বর্তমান ধীরগতির অর্থনীতির কারণে প্রাক্কলিত জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৩ শতাংশ পর্যন্ত কমে যাবে। তার ওপর যদি আবার ’শাট ডাউন’ করা হয় তাহলে পাকিস্তানের অর্থনীতি যে পর্যায়ে পৌঁছাবে সেখান থেকে ফিরে আসা সম্ভব হবে না।

এদিকে, পাকিস্তানে করোনাভাইরাস আক্রান্তদের ৭০ শতাংশই সিন্ধু প্রদেশের অধিবাসী। সেখানে জনসমাগমের ব্যাপারে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, চীনের করোনা ভাইরাস এরই মধ্যে বিশ্বের ১৬৫ টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। এদিকে, ইউরোপের দেশ গুলোতে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। যার কারণে এরই মধ্যে ইউরোপের অনেক দেশ করোনা ভাইরাস প্রতিরোধের জন্য বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সাথে সকল রকম যোগাযোগ বন্ধ করে দিয়েছে। তবে পাকিস্তান এখনই অন্য দেশের সাথে যোগাযোগ বন্ধ করতে চান না বলেন, ইমরান খান।