মানুষ প্রেমের জন্য কত কিছুই না করেন। প্রেম করে বিয়ে করতে না পেরে অনেক বিশ্ব প্রেমিক সারা জীবন বিয়ে না করেই পার করে দেন। আবার অনেক প্রেমিক বিয়ের জন্য বছেরকে বছর অপেক্ষা করেন। আবার অনেক প্রেমিক-প্রমিকা ছলনা করেন। তেমনি এবার ঘটলো এক ঘটনা। ১ যুগ প্রেমের সম্পর্কের পর বিয়ে করতে রাজি হচ্ছে না প্রেমিকা। এরপর সেই যুবক প্রেমিকার বাড়ির সামনে অনশনে বসলেন। এই সংবাদ পুলিশ পাওয়ার পর সেই যুবককে বাড়ির সামনে থেকে সরিয়ে দিয়েছে।
জানা গেছে, দক্ষিণ ২৪ পরগনার নরেন্দ্রপুরের গড়িয়া নবগ্রামের বাসিন্দা বাবু মণ্ডল। প্রায় ১২ বছর ধরে এলাকারই এক তরুণী দেবযানীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক ছিল তার। কিন্তু এই সম্পর্ক মেনে নেয়নি তরুণীর পরিবার। তার পরও তাদের সম্পর্ক স্বাভাবিকই ছিল। কিছুদিন ধরে ওই যুবককে এড়িয়ে চলতে শুরু করে দেবযানী। একাধিকবার এই বিষয়ে প্রেমিকার সঙ্গে কথা বলেন বাবু। কিন্তু কোনও কিছুতেই পুরনো সম্পর্ক জোড়া লাগাতে রাজি হননি ওই তরুণী। স্পষ্টভাবে দেবযানী জানিয়ে দেন, তার পক্ষে বাবুকে বিয়ে করা সম্ভব নয়। এমনকি বাড়ির লোকদের পছন্দে বিয়ের জন্য প্রস্তুতি নিতে শুরু করছে দেবযানী এমন খবরও ছড়িয়ে পড়ে।

তারপর বুধবার প্রেমিকাকে ফিরে পেতে দেবযানীর বাড়ির সামনে অনশনে বসলেন বাবু। পুলিশ সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে বাবুকে উঠিয়ে দেন। সে সময় বাবু অনেকটা বাধ্য হয়ে সরে যান। এরপর আজবৃহস্পতিবার প্রেমিকার বাড়ির সামনে আবারও অনশনে বসেন বাবু। পুলিশ আবারও তাকে তারিয়ে দেন। বাবু জানিয়েছেন, আমি দেবযানীকে না পাওয়া পর্যন্ত আমার এই অনশন চলবে।

কিন্তু এ সম্পর্কে দেবযানী ও তার পরিবার কোনও সদ্বউত্তর দেয়নি। ভালবাসার মানুষকে ফিরে পেতে ধূপগুড়ির অনন্ত প্রথম অনশনের পথ বেছে নিয়েছিল। এরপর আরও অনেক প্রেমিক তার দেখানো পথে হেঁটেছেন। তবে অকেরই খালি হাতেই ফিরতে হয়েছে। বাবুর ভবিষ্যৎতে কি হবে তা সময় বলে দিবে।