দশ দিন পরই ভারতের প্রধান বিরোধী দল জাতীয় কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীর জন্মদিন। ৪৯ বছরে পা দেবেন তিনি। তার আগে লোকসভা নির্বাচনে জয়ী আসন ওয়ানাডে যান রাহুল। সেখানে তার জন্মের সময় দায়িত্ব পালন করা নার্সের বাড়িতে গিয়ে সাক্ষাৎ করেছেন ভারতের তরুণ ও জনপ্রিয় এই রাজনীতিবীদ।
৭২ বছর বয়সি ওয়েনাডের ভোটার রাজাম্মা ভাভাতিলের এখন অবসরপ্রাপ্ত। সাক্ষাতের সময় রাজাম্মাকে জড়িয়ে ধরেন রাহুল। টুইটারে সেই ছবি পোস্ট করেছেন তিনি।

ইন্দিরা গাঁধীর পৌত্রের জন্মের সাক্ষী রাজাম্মা। ৪৯ বছর আগে দিল্লির হোলি ফ্যামিলি হাসপাতালে সদ্যোজাত রাহুলকে দু’হাতে ধরেছিলেন রাজাম্মা। তখন তিনি শিক্ষানবীশ নার্স। রাহুলের দেখভালের ভার ছিল তার ওপর। এই সব অভিজ্ঞতা আজ ফের রাহুলকে বলেছেন রাজাম্মা। মন দিয়ে তার প্রতিটি কথা শুনেছেন রাহুল। তার জন্মের আগে তার বাবা রাজীব গাঁধী এবং কাকা সঞ্জয় গাঁধী লেবার রুমের বাইরে অপেক্ষা করছিলেন। সোনিয়া গান্ধীকে তখন নিয়ে যাওয়া হয়েছে সেখানে— রাজাম্মার মনে রয়েছে প্রতিটি মুহূর্তই।

লোকসভা নির্বাচনের প্রচার চলাকালীন কংগ্রেস সভাপতির নাগরিকত্ব নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন বিজেপি নেতা ও রাজ্যসভার সাংসদ সুব্রহ্মণ্যম স্বামী। সেই সময়ে সমালোচকদের মুখ বন্ধ করতে এগিয়ে এসেছিলেন রাজাম্মা। তিনি স্পষ্ট বলেছিলেন, রাহুলের নাগরিকত্ব নিয়ে প্রশ্ন তোলার অধিকার কারও নেই। সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে ফোনে তখন তিনি বলেছিলেন, ’আমি সেই ভাগ্যবানদের এক জন, ওকে প্রথম কোলে তুলেছিলাম। কী মিষ্টি ছেলেটা। ওর জন্মের সাক্ষী আমি। আমরা সবাই তখন উত্তেজিত, ইন্দিরা গান্ধীর নাতিকে দেখছি!’

সূত্র:ঢাকা টাইমস