রাকেশ রোশন হলেন একজন ভারতীয় চলচ্চিত্র পরিচালক ও প্রযোজক। পাশাপাশি তিনি চিত্রনাট্য রচনা, চিত্রসম্পাদনা ও ১৯৭০ ও ১৯৮০ এর দশকে কয়েকটি চলচ্চিত্রে অভিনয়ও করেছেন। অভিনেতা হিসেবে তিনি মূলত সঞ্জীব কুমার ও রাজেশ খান্না অভিনীত চলচ্চিত্রে পার্শ্ব ভূমিকায় কাজ করেছেন। পরে তিনি ১৯৮৭ সাল থেকে পরিচালনার মাধ্যমে খ্যাতি অর্জন করেন। তবে বর্তমান সময়ে এই বিখ্যাত রোশন পরিবারে চলছে নানা রকমের সমস্যা। বলিউডের তারকাখচিত এই পরিবারে একের পর এক সমস্যা লেগেই আছে। পরিবারটিতে চলতি বছরে ঋত্বিকের ’সুপার ৩০’র দারুণ সাফল্য ছাড়া আর কোন সুখবরই নেই। এমনকি গত শুক্রবার (৬ সেপ্টেম্বর) রাকেশ রোশনের জন্মদিনটাও কাটলো একদম নীরবে।

বর্ণময় ক্যারিয়ার সমৃদ্ধ জীবনের ৭০ বছর পার করলেন রাকেশ রোশন। কিন্তু এই বছর তার পরিবার বেশ কঠিন সময় পার করছে। তার শরীরে বাসা বেঁধেছে জীবনঘাতী রোগ ক্যান্সার। পরিবারের বিরুদ্ধে মেয়ে সুনয়না সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিষোদগার করে সম্মানহানী করেছেন। ঋত্বিকের সঙ্গে কঙ্গনা রনৌতের বিতর্ক হয়েছে। ঋত্বিকের নানা জে. ওম প্রকাশ মারা গেছেন।

এরপরও কোনকিছুই দমিয়ে রাখতে পারেনি রোশন পরিবারের কুলপতি রাকেশকে। তিনি তার কাজ করে যাচ্ছেন। তার পরিচালিত সর্বশেষ সিনেমা ’কৃষ ৩’ (২০১৩)। তখন ১১৫ কোটি রুপি বাজেটে নির্মিত সিনেমাটি ২৯২ কোটি রুপি আয় করেছিল। ঋত্বিক অভিনীত সুপারহিট ’কৃষ’ ফ্র্যাঞ্চাইজির মাধ্যমে ভারতীয় সিনেমা জগতে নতুন একজন সুপারহিরো উপহার দিয়েছেন রাকেশ।

রাকেশ রোশন এখন ’কৃষ ৪’ নির্মাণের জন্য পাণ্ডুলিপি প্রস্তুত করছেন। এ প্রসঙ্গে তিনি ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ডেকান ক্রনিকলকে বলেন, ’এখনও কিছু চূড়ান্ত হয়নি। শুধুমাত্র আমার ছেলে ঋত্বিক এখানে অভিনয় করবে, এতটুকুই বলতে পারি। ঋত্বিককে মূল চরিত্রে না রেখে আমি কোনো সিনেমা বানাব না।’

রাকেশের বন্ধু ও সহকর্মী, বর্ষীয়ান অভিনেতা ঋষি কাপুর সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, তিনি তার প্রাপ্যটুকু বলিউড থেকে কখনোই পাননি। তবে রাকেশ রোশন জীবনে যা পেয়েছেন তাই নিয়েই খুব খুশি। তিনি বলেন, ’আমার কাছে আর কী চাওয়ার আছে? ১৯৭০’র দশকে প্রধান চরিত্রে আমার অভিনীত অনেক সিনেমা হিট হয়েছে। তারপর পরিচালক হিসেবেও আমি অনেকগুলো সাফল্য পেয়েছি। সর্বোপরি, আমি চমৎকার ও সহায়ক একটি পরিবার পেয়েছি। আমার আর কী চাই?’

দেখতে দেখতে ৭০ বছর পূর্ণ হলো রাকেশের। তবে এবার এ নিয়ে তার নিজ পরিবারে কোন রকম আয়োজন বা আনন্দ নেই। কিন্তু এটা ভাবারও কোন কারণ নেই যে, তার কিছু ব্যক্তিগত সমস্যার জন্যই কোন রকম আয়োজন ছাড়াই প্রতিদিনের মতো সাধারণ ভাবে কাটলো দিনটি। রোশন পারিবারের কাছের লোকের মাধ্যমে জানা যায়, মূল ঘটনা হলো ঋত্বিকের নানা মারা যাওয়ার কারণেই এবার কোন উৎসবের ব্যবস্তা করা হয়নি। তাই দিনটা অনেকটা নীরবেই কাটিয়েছে রোশন পারিবার। এর পাশাপাশি তার কাছের বন্ধু ঋষি কাপুর দেশের বাইরে আছে। এ জন্য রাকেশ তার ছেলে ঋত্বিককে ৭০তম জন্মদিনের উৎসব আগামী যে কোন সময়ের জন্য করার আহবান জানিয়েছেন।