জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ভিসি প্রফেসর ড. এ এইচ এম মুস্তাফিজুর রহমান অবশেষে ইউরোপ সফর বাতিল করলেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের লিফট কেনার জন্য চলতি মাসের ২০ থেকে ২৯ তারিখ পর্যন্ত সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানের টাকায় ভিসিসহ ৯ জনের একটি দলের সুইজারল্যান্ড ও স্পেন সফরের কথা ছিল।
কিন্তু ভিসার জন্য সুইজারল্যান্ড দূতাবাসে বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে যে ৯ জনের অনাপত্তিপত্র দেওয়া হয়েছিল, এতে সেই উপাচার্যের নামও ছিল।তবে এখন তিনি আর যাচ্ছেন না এ বিষয় নিশ্চিত করেছেন। কিন্তু বিভিন্ন সূত্র জানিয়েছে বাকি আটজন যাচ্ছেন।

সেই আটজিন হলেন- ট্রেজারার প্রফেসর মো: জালাল উদ্দিন, রেজিষ্টার ড. মো: হুমায়ুন কবির, প্রক্টোর ড. উজ্জ্বল কুমার প্রধান, পরিচালক (পরিকল্পনা ও উন্নয়ন) ইঞ্জি. মো: হাফিজুর রহমান, সহকারি প্রধান ইঞ্জিনিয়ার মো: মাহবুবুল ইসলাম, ফিন্যান্স এন্ড ব্যাংকিং এর সহযোগী অধ্যাপক সোহেল রানা, কলা অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. মো: শাহাবুদ্দিন ও ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. সুব্রত কুমার দে। এদের মধ্যে আবার ছয় জনেরই নেই লিফট সম্পর্কে কোনা কারিগরি জ্ঞান।
তবে ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার হুমায়ুন কবির বলেন, ’এই সফরের বিষয়টি প্রকল্প প্রস্তাবেই ছিল। ওই কোম্পানির কারখানা সুইজারল্যান্ডে। আর চালান হবে স্পেন থেকে। এ জন্যই আমরা ওই দু’দেশে যাচ্ছি।’

বিশ্ববিদ্যালয় কতৃপক্ষের এমন বক্তব্যের পর অনেকেই বলছেন, কলা অনুষদ অথবা ব্যবসায় অনুষদের শিক্ষকরা লিফট সম্পর্কে কী জ্ঞান রাখে? ইউরোপ ভ্রমণ ছাড়া এ সফরের আর কোনো মাহাত্ম নেই। আর যদি সরবরাহকারি প্রতিষ্ঠানই ইউরোপ যাত্রা বিনামূল্যে করিয়ে থাকে তাহলে আগেই এর খরচ পকেটে তুলেছে ক্রিয়েটিভ ইঞ্জিনিয়ার্স।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্র জানায়, নির্মাণাধীন কয়েকটি বহুতল ভবনের জন্য ১৫টি লিফট কেনার জন্য দরপত্র পায় ক্রিয়েটিভ ইঞ্জিনিয়ার্স। একেকটি এক হাজার ও সাড়ে বারো’শ কেজির ধারণক্ষমতা সম্পন্ন। মোট খরচ পড়ছে প্রায় ১৩ কোটি টাকা। এগুলো কেনা হচ্ছে শিন্ডলার এলিভেটেড নামে একটি প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে। আর এটি সরবরাহ করছে মেসার্স ক্রিয়েটিভ ইঞ্জিনিয়ার্স লিমিটেড। প্রাক চালান পরিদর্শন বা প্রি-শিপমেন্ট ইন্সপেকশন হিসেবে এখন ৬ শিক্ষক ও দুই প্রকৌশলী ২০ থেকে ২৯ অক্টোবর পর্যন্ত সুইজারল্যান্ড ও স্পেন সফর করবেন। এ সময় তাদের বিমান ভাড়া থেকে যাবতীয় ব্যয় বহন করবে সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানটি।

এ নিয়ে গত শুক্রবার একটি অনলাইন নিউজ পোর্টালে একটি নিউজ বের হয় তার হেড লাই ছিনো ’লিফটের জন্য-সুইজারল্যান্ড-স্পেন সফর’। বেসরকারি টিভি চ্যানেল নিউজ টোয়েন্টিফোরও একই দিনেনজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের লিফট কাণ্ড নিয়ে খবর প্রকাশ করেন। তারপরই ওই সফরে থাকা সবাইকে অনেক সমালোচনার মুখে পড়তে হয়। এমনকি বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যমগুলোতেও সংবাদটি সারা ফেলে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের পেইজে পেইজে, তাদের নিজস্ব টাইমলানে ও বিভিন্ন গ্রুপে সংবাদটি প্রচুর শেয়ার করা হয়। এর সাথে সাথে মন্তব্যের ঝুড়ি বড় হতে থাকে। এমন পরিস্থিতিতে ভিসি সুইজারল্যান্ড-স্পেন সফর বাতিল করলেন।