ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) আরও একটি মেধাবী স্বপ্নের মৃত্যু হয়েছে। অকালে না ফেরার দেশে চলে গেছেন তিনি। ঢাবির উন্নয়ন অধ্যয়ন বিভাগের মেধাবী ছাত্র তাওশিক আহমেদ সোমবার দুপুরে রাজধানীর ডেল্টা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলায়হি রাজিউন)। ফুসফুসে ক্যান্সারে ভুগছিলেন তিনি।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়ন অধ্যয়ন বিভাগে মাস্টার্সে সিজিপিএ-৪ এর মধ্যে ৪ পেয়ে প্রথম স্থান অধিকার করেছিলেন তাওশিক আহমেদ। এরপর ২০১৭ সালে কাজ শুরু করেন ব্র্যাকে। কিন্তু এর পরের বছরই ফুসফুসের ক্যানসার ধরা পড়ে তার।

তাওশিকের বন্ধুরা জানিয়েছেন, তিনি অসম্ভব মেধাবী ছিলেন। সবাই ধরেই নিয়েছিলেন তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক হবেন। কিন্তু তার অকাল মৃত্যু যেন সবকিছু মিথ্যা প্রমাণ করে দিল। এছাড়া তাওশিক ফটোগ্রাফি ও ফ্রিল্যান্সিং করতে ভালোবাসতেন।

বন্ধুরা জানিয়েছেন তাওশিক অত্যন্ত মেধাবী ছাত্র ছিলেন। তাওশিকের বাড়ি বগুড়া জেলার কাহালু-নন্দীগ্রাম। তার বাবা একটি বেসরকারি কলেজের শিক্ষক এবং মা গৃহিণী। সূত্র:latestbdnews