বর্তমানে প্রায় সময় সংবাদ প্রকাশ পায় হেলিকপ্টারে চড়ে বিয়ে করতে যায় বর। আর এবার তেমনি হেলিকপ্টারে চড়ে এক বর বিয়ে করতে গেলেন। এই বিয়ে হয়েছে পাবনার সুজানগর ভবানীপুর গ্রামে। এ সময় অনেক মানুষ হেলিকপ্টার দেখতে ভির করেন। তবে এবার জানা গেল স্ত্রীর ইচ্ছা পূরণে সওজ প্রকৌশলী হেলিকপ্টারে বিয়ে করতে গেলেন।


হেলিকপ্টারে চড়ে বিয়ে করতে গেলেন সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগের প্রকৌশলী জাহিদুর রহমান (মিলু)। শুক্রবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) পাবনার সুজানগর ভবানীপুর গ্রামে কনে জেরিন খানের বাড়িতে বিয়ে সম্পন্ন হয়।

প্রকৌশলী জাহিদুর রহমান মিলু সুজানগর উপজেলার আহম্মদপুর উত্তরপাড়া গ্রামের রওশন আলীর ছেলে। তিনি সিরাজগঞ্জ সড়ক ও জনপথ বিভাগের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী। আর কনে জেরিন খান সুজানগর উপজেলার ভবানীপুর গ্রামের ব্যবসায়ী উজ্জল খানের মেয়ে। তিনি সুজানগর এনএ (নিজামুদ্দিন-আজগর আলী) কলেজের এইচএসসি দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী।

জাহিদুর রহমান মিলুর ভাবি রথি খাতুন জানান, কনের ইচ্ছা ছিল হেলিকপ্টারে চড়ে শ্বশুরবাড়িতে যাওয়ার। তার সে ইচ্ছা পূরণ করতেই হেলিকপ্টার ভাড়া করা হয়েছে।

তিনি জানান, তার দেবর হেলিকপ্টারে চড়ে কনের বাবার বাড়িতে পৌঁছান। বরযাত্রীরা যান মাইক্রোবাসে। বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা শেষে শুক্রবার বিকেল ৫টার দিকে বর-কনে হেলিকপ্টারে উড়াল দেন।

তবে হেলিকপটারের ভাড়ার বিষয়ে কোনো কথা বলেননি বর প্রকৌশলী জাহিদুর রহমান মিলু। তিনি জানান, তাদের বিয়েটা পারিবারিকভাবেই সম্পন্ন হয়েছে।


এদিকে, ওই এলাকার এক স্থানীয় বাসিন্দা ও কলেজ শিক্ষক জানান হেলিকপ্টারে চড়ে এটাই প্রথম তাদের এলাকার বিয়ের ঘটনা। আর এই হেলিকপ্টার দেখতে ওই এলাকায় অনেক মানুষ ভির জমান। তবে এই হেলিকপ্টারের ভাড়া সম্পর্কে বর পক্ষ থেকে কোনো তথ্য জানানো হয়নি।