গত কয়েক মাস ধরে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে অনেক বেশি অভিযোগ উঠে আসছে যে কিছু খারাপ চরিত্রের মানুষ তরুণীদের সাথে অনেক খারাপ ব্যবহার করছেন। এমনকি পুলিশের বিরুদ্ধে প্রায় সময় অভিযোগ উঠে আসছে। আর এবার তেমনি এক পুলিশের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠে এসেছে যে তিনি এক তুরুণীর সাথে আসামিক কাজ করেছেন। তবে এবার সেই পুলিশকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে তরুণীকে (২৫) ’ধ’/র্ষ’/ণে’/র’ অভিযোগে এক পুলিশ সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বুধবার (৭ অক্টোবর) রাতে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।
এর আগে ভুক্তভোগী ওই তরুণী বাদী হয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলার আসামি আব্দুল কুদ্দুস নয়ন (৩৫) রাজারবাগ পুলিশ লাইনসে কর্মরত।
সিদ্ধিরগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ইশতিয়াক আশফাক রাসেল বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
জানা যায়, ভুক্তভোগী তরুণীর সঙ্গে দুই বছর আগে ফেসবুকের মাধ্যমে পরিচয় হয় পুলিশ সদস্য মো. আব্দুল কুদ্দুস নয়নের। ফেসবুকের পরিচয়ের সূত্র ধরে নয়নের সঙ্গে প্রায়ই কথা হতো ওই নারীর। এক পর্যায়ে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। নয়ন প্রায় সময়ই ওই নারীর বাসায় যাতায়াত করতেন।
গত ৬ অক্টোবর বিকেলে নয়ন আবারো ওই তরুণীর বাসায় যান। এ সময় বিয়ে সংক্রান্ত বিষয়ে আলোচনার কথা বলে তাকে ’ধ’/র্ষ’/ণ’ করেন পুলিশ সদস্য নয়ন। সূত্র:পূর্বপশ্চিমবিডি



এদিকে, দেশের বিভিন্ন স্থানে এমন ঘটনা বেড়েই চলেছে বিশেষ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পরিচয় হওয়ার পর অনেক সময় তরুণীরা দেখা করতে গিয়ে এমন বিপদে পড়ছে। আর তেমনি এই তরুণী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে এমন বিপদে পড়েছেন। আর ওই পুলিশ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে।