পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ-সিআইডি এর একটি বিশেষ গ্রুপ এক আসামিকে গ্রেফতার করেছে যার নামে রয়েছে ১৮ মামলা যার বিরুদ্ধে রয়েছে ১৫ কোটি টাকারও অধিক আত্মসাতের অভিযোগ। গ্রেফতার হওয়া এই আসামির নাম রিয়াজুল ইসলাম রাজু। তিনি যশোর এলকায় একটি সমিতি চালু করেন যার নাম ছিল প্রাইম মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটি লিমিটেড। তিনি ঐ প্রতিষ্ঠানের সভাপতি হিসেবে দায়িত্বে ছিলেন।
বুধবার সিআইডির অতিরিক্ত বিশেষ পুলিশ সুপার মো. ফারুক হোসেন গনমাধ্যমকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, সিআইডির অর্গানাইজড ক্রাইম ইউনিটের ইকোনমিক ক্রাইম স্কোয়াডের একটি দল ৯ জানুয়ারি যশোরের কোতয়ালী এলাকায় অভিযান চালিয়ে রিয়াজুল ইসলামকে আটক করে। তার বিরুদ্ধে প্রাইম মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটি লিমিটেডের গ্রাহকের প্রায় ১৫ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ রয়েছে। এই অভিযোগে রিয়াজুলের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় ১৮টি মামলা রয়েছে।

তাকে আটকের পর রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে সিআইডি। তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

জানা যায়, রিয়াজুল ইসলাম রাজু ও তার বেশ কয়েকজন সহযোগী গত বছরের ১৫ জুলাই প্রাইম মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটি লিমিটেডের নামে সনদ নেয়। এরপর যশোর, সাতক্ষীরা, ফরিদপুর ও কুষ্টিয়াসহ বিভিন্ন এলাকায় তাদের কার্যক্রম শুরু করে। বিভিন্ন সময় চক্রটি প্রতারণার মাধ্যমে ১৫ কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়।

ফারুক হোসেন বলেন, ’তদন্তে আমরা জানতে পেরেছি চক্রটি বিভিন্ন জেলায় স্থানীয় অসাধু ব্যক্তিদের সহযোগিতায় শাখা অফিস খোলে। প্রথমে গ্রাহককে লোভনীয় প্রস্তাবের মাধ্যমে প্রলুদ্ধ করে তারা। বাৎসরিক ৩০ শতাংশ লাভে সঞ্চয়পত্র খোলা, স্থায়ী আমানতে চার বছরে দ্বিগুণ টাকা দেওয়ার প্রলোভন দেয়। এতে প্রায় ২৫’শত গ্রাহক তাদের কাছে প্রায় ১৫ কোটি টাকা জমা রাখে। এসব টাকার সবই রিয়াজুল ও তার চক্রের সদস্যরা আত্নসাৎ করে।’

সিআইডি অনুসন্ধানের পর জানতে পারে, তিনি গ্রাহকদের টাকা আত্মসাৎ করে নিজের নামে দুটি বড় বাড়ি, দুটি কাভার্ড ভ্যান ক্রয় করেছে এবং তাছাড়া সমিতি চালুর পর ১০ বিঘা জমির মালিকও হয়েছেন। শুধু এটাই নয় তিনি প্রাইম মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটি লিমিটেডের নাম দিয়ে দুটি গাড়ি কিনেছেন এবং আরও ছয়টি জমি কিনেছেন বলে স্বীকার করেছেন। দেশের সাধারন মানুষকে অনেক লাভ দেখিয়ে এরুপ টাকা আত্মসাৎ করে আসছে অনেক নামধারী গ্রাম্য সমিতি যারা একটু সুবিধা দেখালে সাধারন মানুষ তাদের কষ্টার্জিত টাকা দিতে শুরু করে এই ধরনের গজিয়ে ওঠা সমিতিগুলোতে।